1. admin@swapno.info : admin :
  2. info.popularhostbd@gmail.com : PopularHostBD :
আম্পায়ারের প্রতি হাস্যকর আবদার করেছিলেন শোয়েব আখতার | স্বপ্ন ইনফো
bn Bengali
bn Bengalien English
September 23, 2020, 2:41 am

আম্পায়ারের প্রতি হাস্যকর আবদার করেছিলেন শোয়েব আখতার

Reporter Name
  • Update Time : Monday, August 10, 2020
  • 36 Time View
swapno.info
আম্পায়ারের প্রতি হাস্যকর আবদার করেছিলেন শোয়েব আখতার

ভারতের ‘দ্য পিলার‘ খ্যাত ব্যাটসম্যানকে আউট করে দেয়ার বাহানা খুঁজছিলেন সে সময় বোলিং প্রান্তে থাকা পাক গতি তারকা শোয়েব আখতার।

তিনি আম্পায়ারকে বলেছিলেন, আজ শুক্রবার। দ্রাবিড়কে আউট দিয়ে দিন।

১৯৯৯ সালে তিন জাতির পেপসি কাপ খেলতে ভারতে গিয়ে আম্পায়ারের প্রতি এমন হাস্যকর আবদার করেছিলেন শোয়েব আখতার।

সম্প্রতি ভারতের সাবেক ক্রিকেটার আকাশ চোপড়ার ইউটিউব চ্যানেলে এক আড্ডায় সেই স্মৃতি রোমন্থন করেন শোয়েব আখতার।

তিনি বলেন, ‘বেঙ্গালুরুতে এক ফাইনাল ম্যাচে শুরুটা ভালো ছিল না ভারতের। আমি রমেশকে দ্রুত আউট করে ফেলেছিলাম, ৩-৪ উইকেট বেশ দ্রুত পড়ে গিয়েছিল। সেদিন শচীন টেন্ডুলকার ছিলেন না একাদশে। উইকেটে রাহুল দ্রাবিড় ছিলেন। উইকেটে তার মতো ব্যাটসম্যান থাকলে তাকে আমরা লেংথ বল করতাম। স্টাম্পের কাছাকাছি থেকে বল করাতাম, ব্যাট ও প্যাডের মাঝের ফাঁক লক্ষ্য করে বল ছুড়তাম, যাতে প্যাডে বল লাগে।’
তিনি যোগ করেন, ‘শহীদ আফ্রিদি আমাকে বললেন, দ্রাবিড় অনেক সময় নেবে। তাকে আউট করা কঠিন। আর আজ আমাদের “ফ্রাইডে নাইট”। কিছু একটা করো এবং দ্রাবিড়ের উইকেটটি নাও।

এরপর শোয়েব বলেন, আমার একটি বল দ্রাবিড়ের প্যাডে লাগতেই আমি আম্পায়ারের কাছে আউটের আবেদন জানালাম। এরপর আম্পায়ারকে বললাম – আজ আমাদের “ফ্রাইডে নাইট” ওকে আউট দিয়ে দিন। কিন্তু আম্পায়ার আমাদের পক্ষে সিদ্ধান্ত দিল না।

এক গাল হেসে শোয়েব বলেন, শেষ পর্যন্ত অবশ্য আমরাই জিতেছিলাম। তবে আমার কাছে দ্রাবিড় খুবই কঠিন ও দৃঢ়প্রতিজ্ঞ এক ব্যাটসম্যান। তিনি আমার বলগুলো খুব সহজে খেলতেন।’

১৯৯৯ সালের তিন জাতির পেপসি কাপে সেদিনের ফাইনালে প্রথমে ব্যাট করে ২৯২ রানের টার্গেট দিয়েছিল পাকিস্তান। জবাবে ১৬৮ রানে থেমে ভারতের ইনিংস। ১২৩ রানে জয় পায় পাকিস্তান। সেদিন রাহুল দ্রাবিড়ের ব্যাট থেকে আসে ৫৬ রান।

তথ্যসূত্র: দ্য ক্রিকেট টাইমস

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category