1. admin@swapno.info : admin :
  2. info.popularhostbd@gmail.com : PopularHostBD :
পঞ্চগড় সীমান্ত থেকে পুলিশ সদস্যকে ধরে নিয়ে গেলো বিএসএফ | স্বপ্ন ইনফো
bn Bengali
bn Bengalien English
May 17, 2021, 1:34 pm

পঞ্চগড় সীমান্ত থেকে পুলিশ সদস্যকে ধরে নিয়ে গেলো বিএসএফ

Reporter Name
  • Update Time : Monday, February 15, 2021
  • 84 Time View
swapno.info
পঞ্চগড়ে পুকুরের পানিতে পড়ে এক শিশুর মৃত্যু

পঞ্চগড়ঃ পঞ্চগড় সদর উপজেলার মোমিনপাড়া সীমান্ত থেকে ওমর ফারুক (২৪) নামে পঞ্চগড় পুলিশে কর্মরত এক সদস্যকে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ। ওই পুলিশ কনস্টেবল পঞ্চগড় আদালতে বিচারকদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ছিলেন। তার বাড়ি দিনাজপুর জেলায়। ওই পুলিশ সদস্যকে ধরে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে পুলিশ ও বিজিবি নিশ্চিত করলেও ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হননি।

স্থানীয়রা জানায়, রবিবার রাত সাড়ে ৮ টায় পুলিশ কনস্টেবল ওমর ফারুকসহ পঞ্চগড় পুলিশের ৩ সদস্য পঞ্চগড় সদর উপজেলার মোমিনপাড়া সীমান্তে যায়। এ সময় কয়েকজন ভারতীয় সাথে তাদের তর্ক হয়। তর্কের এক পর্যায়ে তারা ওমর ফারুককে আটক করে মারধর করে। পালিয়ে যায় পুলিশের অপর দুই সদস্য। পরে পাশর্^বর্তী ভারতীয় চানাকিয়া বিএসএফ ক্যাম্পের সদস্যরা এসে তাকে আটক করে নিয়ে যায়। তবে তারা কেন সীমান্ত এলাকায় গিয়েছিলেন ভারতীয়দের সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়েন সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানাতে পারেনি বিজিবি।

তবে স্থানীয়দের তথ্য মতে পুলিশের ওই ৩ সদস্য মাদক দ্রব্য আনতেই সীমান্ত এলাকায় গিয়েছিলেন।
ঘটনাস্থলের পাশের বাসিন্দা আমিরুল ইসলাম বলেন, পুলিশের ওই ৩ সদস্য সীমান্ত এলাকায় মাদক দ্রব্য আনতে গিয়েছিলেন। কিন্তু বাকিতে মাদক দিতে তারা অস্বীকার করলে একজন মাদক ব্যবসায়ীকে হ্যান্ডকাপ লাগিয়ে নিয়ে আসছিলেন তারা। এ সময় ভারতীয়রা ক্ষুব্ধ হয়ে তাদের ধাওয়া করে ওমর ফারুককে আটক করে এবং বাকিরা পালিয়ে যায়। আটক করার পর তাকে অনেক মারধর করে তারা। পরে বিএসএফ সদস্যরা এসে তাকে আটক করে ক্যাম্পে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ৫৬ বিজিবির অধিনায়কের নাম্বারে বার বার কল করলেও তিনি ফোন ধরেন নি। তবে পঞ্চগড় বিজিবির ঘাগড়া ক্যাম্প সূত্রে জানা যায়, এ বিষয়ে বিএসএফের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করছেন তারা।

পঞ্চগড় সদর থানার ওসি আবু আক্কাছ আহমদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ওই পুলিশ সদস্য আদালতে বিচারকদের নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত ছিলেন। তার ব্যবহৃত মোটরসাইলেকটি উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। তার সাথে আরও দুজন ছিলেন বলে আমরা শুনেছি।

তবে কারা ছিলেন এবং কেন সীমান্ত এলাকায় গিয়েছিলেন এ বিষয়ে আমরা এখনও নিশ্চিত না। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category